বীরভূমের রাজাদের বংশ তালিকা

 বীরভূমির রাজাদের নাম, শাসন ও বংশতালিকা 


 বীরভূমের রাজাদের বংশতালিকা তুলে ধরা হলো  এতে রয়েছে, প্রত্যেক রাজার নাম, কোন সালে সিংহাসন আরোহণ করেন, কতদিন রাজত্ব করেন, কোথায় বসবাস করেন ও কোন রোগে মারা যান ইত্যাদি। 

 

১. দেওয়ান রণমস্ত খান বাহাদুর

 বাংলা ১০০৭ সালের (১৬০০ খ্রীস্টাব্দ) জ্যৈষ্ঠ মাসের শুরু হতে বাংলা ১০৬৬ সালের ( ১৬৫১ খ্রীস্টাব্দ ) ১লা কার্তিক পর্যন্ত  রাজত্ব করেন বীরভূমে। জ্বরে মারা যান।


২. দেওয়ান খাজা কামাল খান বাহাদুর

 মৃত রাজার পুত্র, বাংলা ১০৬৬ সাল ( ১৬৫৯ খ্রীস্টাব্দ) হতে ১১০৪ সাল (১৬৯৭ খ্রীস্টাব্দ ) পর্যন্ত  রাজত্ব করেন।তিনি জ্বরে মারা যান। তাঁকে 'বড় ফুল বাগানে' সমাধি দেওয়া হয়। কামাল খান ৩৮ বৎসর ৪ মাস ১৩ দিন রাজত্ব করেন।

 

৩. দেওয়ান অসদ উল্লা খান

 দেওয়ান খাজার পুত্র, বাংলা ১১০৪ সাল (১৬৯৭ খ্রীস্টাব্দ ) হতে ১১২৫ সাল ( ১৭১৮ খ্রীস্টাব্দ ) অবধি রাজত্ব করেন। তিনি ২১ বৎসর ১ মাস ২০ দিন রাজত্ব করেন। নিজ পুত্রদের আজিম খান ও বদিয়া জামান খানকে উত্তরাধিকারী ঘোষণা করে তিনি মারা যান।


৪. দেওয়ান বদিয়া আল জামান খান

 বাংলা ১৯২৫ সাল (১৭১৮ খ্রীস্টাব্দ) হতে ১১৫৮ সাল ( ১৭৫১ খ্রীস্টাব্দ ) অবধি রাজত্ব করেন। তিনি পুরো ৩৩ বৎসর রাজত্ব করেন। তিনি তাঁর চার পুত্রকে – আহমদ আল জামান খান মহম্মদ- আলি নকি খান, অসদ আল জামান খান ও বাহাদুর আল জামান খানকে উত্তরাধিকারী ঘোষণা করেন; এবং অন্য ৩ জনের সম্মতিসহ তৃতীয় পুত্র অসদ আল জামান খানকে বাংলা ১৯৪৯ সালের ১লা বৈশাখ সিংহাসনে আরোহণ করান। বাংলা ১১৭৮ সালে তিনি মারা যান। তাঁর শবদেহ ফুলবাগানে সমাধিস্থ করা হয়।জোষ্ঠ পুত্র আহমদ আল জুমন খান পিতার চোখের সামনে রাজনগরে বাংলা ১১৬৯ সালের (১৭৬২ খ্রীস্টাব্দ) ১৫ মাঘ মারা যান। বড় ভাই-এর পাশে বড় ইমামবাড়ায় তাঁকে সমাধিস্থ করা হয় ।


 ৫. রাজা মহম্মদ অসদ অল জামান খান বাহাদুর 

 বাংলা ১১৫৯ সালের ( ১৭৫২ খ্রীস্টাব্দ ) ১লা বৈশাখ হতে ১১৮৪ সাল ( ১৭৭৭ খ্রীস্টাব্দ ) পর্যন্ত  রাজত্ব করেন। ১১৮৪ সালে, বন্ধু অভিজাত ব্যক্তির বাসস্থান কলকাতা নগরীতে গমন করার পর তিনি 'কলিজ' রোগাক্রান্ত হয়ে মারা যান। [ 'কলিজ' এক প্রকারের পক্ষাঘাত বিশেষ, দেশীয় ধারণা অনুসারে, কোনো ব্যক্তির উপ উড্ডীয়মান পক্ষীর ছায়াপাত হতে এই রোগের উৎপত্তি । ] তাকে ফুলবাগানে সমাধিস্থ করা হয় । তিনি ১৬ বৎসর রাজত্ব করেন।


৬. মহম্মদ বাহাদুর আল জামান খান।

 ভ্রাতার মৃত্যুর পর বাংলা ১১৮৫ - সালের ( ১৭৭৮ খ্রীস্টাব্দ ) শুরু হতে ১১৯৬ সাল (১৭৮১ খ্রীস্টাব্দ ) পর্যন্ত  রাজত্ব করেন। তাঁর রাজত্বকাল ছিল ১২ বৎসর। বাংলা ১১১৩ সাল, জীবিত থাকা কালে তিনি তাঁর শিশুপুত্রকে দিয়ে রাজকার্য সংক্রান্ত সমস্ত কাগজপত্রে দস্তখত ও সিলমোহর করান এবং পুত্রকে সকল রাজকার্য ও প্রথা শিক্ষা দেন । ১১৯৬ সালে, হাসিনাবাদের পল্লীভবনে কোবৃদ্ধি রোগে তিনি মারা যান। তাঁর মরদেহ রাজধানীতে আনয়ন করার পর ফুলবাগানে সমাধিস্থ করা হয়।


৭. রাজা মহম্মদ আল জামান খান বাহাদুর

 পিতার মৃত্যুর পর, নাবালক থাকাকালীন সিংহাসনে বসেন। তিনি রাজকার্য সম্পন্ন করতেন এবং সরকারি কাগজপত্রে দস্তখত দিতেন ও সিলমোহর দিতেন। তিনি নাবালক থাকার কারণে মিঃ কিটিং তত্ত্বাবধায়ক ছিলেন এবং দেওয়ান ছিলেন লাল বামনাথ । বাংলা ১১৯৭ সালে ( ১৭৯০ খ্রীস্টাব্দ ) তিনি সাবালক হন এবং বীরভূম রাজ্যের জন্য সরকারের নিকট হতে সনদ লাভ করেন। তিনি ১২ বৎসর রাজত্ব করেন। অসুস্থ হয়ে (সঞ্জরপোতা রোগে), বাংলা ১২০৮ সালের ( ১৮০১ খ্রীস্টাব্দ ) ৫ ফাল্গুন বারাদুয়ারী প্রাসাদে তিনি মারা যান। তাঁর মরদেহ বড় ফুলবাগানে সমাধিস্থ হয় ।


৮. রাজা মহম্মদ দৌরা আল জামান খান 

বাংলা ১২০৯ সালে ( ১802 - খ্রীস্টাব্দ) রাজত্ত্ব করেন। বাংলা ১২১৯ সালে ( ১৮১২ খ্রীস্টাব্দ) সরকারের নিকট হতে তিনি সনদ লাভ করেন। ১২৬২ সালে ( ১৮৫৫ খ্রীস্টাব্দ ) ১৭ ফালগুন সঞ্জর রোগে রাজধানীতে তিনি মারা যান। তিনি তাঁর পুত্র মহম্মদ জোহর আল জামান খান এবং তাঁর স্ত্রী রামবাক সানকে উত্তরাধিকারী ঘোষণা করেন। রাজধানীর বাজারে মসজিদের সম্মুখে তাঁর মরদেহ কবর দেওয়া হয় । ( আমার মুনসি ) মোকতার শেষ রহম বক্সের আদেশানুসারে বাংলা ১২৭১ সালের (১৮৬৪ খ্রীস্টাব্দ) ১৮ মাঘ বৃহস্পতিবার নগর পরিবারের বংশ-তালিকা সিউড়িতে অনুলিখিত হয় এবং বেলা ১ ঘটিকায় সমাপ্ত হয় ।




Blogger দ্বারা পরিচালিত.