কোণ ডিগ্রিতে মিনিট সেকেন্ড এর ব্যবহার

 ১ ডিগ্রি সমান ৬০ সেকেন্ড কিভাবে হলো?

আপনাকে বুঝতে হবে সময় আসলে কী?

ধরুন আপনার বন্ধু আপনাকে ফোন করে বললো তার বাড়ি যেতে। আপনি তার বাড়ি যাওয়া অবধি সে অপেক্ষায় রইলো? ঠিক কতক্ষণ অপেক্ষা করেছে তা আমরা ঘন্টা, মিনিট, সেকেন্ড, মিলিসেকেন্ডে বা মাইক্রসেকেন্ড এ ধরে নিচ্ছি।দিন রাত ২৪ ঘন্টা এই হিসেবে।  বলুনতো আমরা সময়ের এতগুলো একক কেন ব্যবহার করছি?  সূক্ষ হিসাবের জন্য।  


এবার আসি ডিগ্রি বা কোণের সাথে সময়ের মিনিটের কী সম্পর্ক বা এক ডিগ্রি সমান ৬০ মিনিট কিভাবে হলো?

পৃথিবী তার নিজ অক্ষের চারিদিকে একবার ঘূর্ণন সম্পূর্ণ করতে ২৪ ঘন্টা সময় নেয়।অর্থাৎ পৃথিবী নিজ অক্ষে  ২৪ ঘন্টায় ৩৬০ ডিগ্রি সার্কেল সম্পূর্ণ করে।

এখন ঘড়ির ঘন্টার কাটা থাকে বারোটি। ঘড়ির ঘন্টার কাটা একবার ৩৬০ ডিগ্রি সম্পূর্ণ করে প্রতি ১২ ঘন্টায়। তাহলে ২৪ ঘন্টায় সম্পূর্ণ করে ৩৬০×২= ৭২০ ডিগ্রি। 

আমরা জানি ঘড়িতে ১২ টি ভাগ রয়েছে (১ থেকে ১২ টা পর্যন্ত)।

তো প্রতিটি ভাগকে আমরা ১ ডিগ্রি ধরে নেব।

অতএব ১ ডিগ্রি সমান = (৭২০÷১২)= ৬০ মিনিট 

1 degree = 60 mint


কোণের হিসাবে ডিগ্রি তে মিনিট বা সেকেন্ড এর একক ব্যবহার করা হয় কেন?


আমরা আগেই বলেছি।কোন মাপের সূক্ষ্ণ হিসাব পাওয়ার জন্য একাধিক একক ব্যহার করা হয়।ঠিক তেমনি শুধুমাত্র ডিগ্রি দিয়ে কোণের সূক্ষ হিসাব পাওয়া যায় না।কখনো কখনো লেখা বা বলার সহজিকরণের জন্য মূল এককের পাশাপাশি সূক্ষ একক ব্যবহার হয়।


চলুন একটা উদাহরণ দিয়ে বিষয়টি পরিস্কার করা যাক।

ধরুন কোন কোণ পরিমাপক যন্ত্রের সাহায্যে আমরা কোন বস্তুর কোণ পেলাম ৩.৪৫৬৭ ডিগ্রি।  তো এটা দেখতে স্ট্যান্ডার্ড মনে হচ্ছে না।বা লিখতে ও বলতে জটিল মনে হচ্ছে। 

এক্ষণ এটাকে যদি DMS Notation এককে আনি অর্থাৎ   ডিগ্রি, মিনিট ও সেকেন্ড এ হিসাবে করি তাহলে কেমন হবে?

দশমিক এর পূর্বে যা থাকবে তা ডিগ্রি ধরে নিতে হবে। অর্থাৎ তিন ডিগ্রি। এখন দশমিক এর যা থাকবে তা মিনিট ও সেকেন্ড এ হিসাব কষতে হবে।

(০.৪৫৬৭×৬০) = ২৭.৪০২ এখানে পূর্ণ সংখ্যা ২৭ অতএব ২৭ মিনিট।  এখন ভগ্নাংশকে সেকেন্ডে রুপান্তর করবো।

(০.৪০২×৬০)= ২৪ সেকেন্ড 

অর্থাৎ ৩.৪৫৬৭ ডিগ্রি কোণকে   DMS Notation বা ভাষায় লিখলে পাবো  ৩ ডিগ্রি ২৭ মিনিট ২৪ সেকেন্ড। গানিতিকভাবে ৩°২৭'২৪" 



অ্যাঙ্গেলে সময়ের ব্যবহার


Blogger দ্বারা পরিচালিত.